Home / মতামত / জয়-লেখকের নেতৃত্বে কৃষকের পাশে দাঁড়িয়েছে ছাত্রলীগ
জয়-লেখকের নেতৃত্বে কৃষকের পাশে দাঁড়িয়েছে ছাত্রলীগ

জয়-লেখকের নেতৃত্বে কৃষকের পাশে দাঁড়িয়েছে ছাত্রলীগ

মিঠুন সরকার:

কৃষকরা এ দেশের প্রাণ। শ্রম ঘাম দিয়ে ধান ফলিয়েছেন কিন্তু করোনার কারণে শ্রমিক সংকটে অনেকে ধান কাটতে পারছেন না। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনায় সঙ্কটে পড়া কৃষকের পাশে ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীদের দাঁড়ানোর খবরটি সকল মহলে সমাদৃত হয়েছে। বোরো মৌসুমে শ্রমিক সংকটে পড়া কৃষকের পাশে দাঁড়াতে নেতাকর্মীদের নির্দেশ দেওয়ার পর ধান কাটতে মাঠে নেমেছিলেন ছাত্রলীগের সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয় ও সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্য। নেতৃত্ব এমনই হওয়া উচিত। নেতা নিজেও মাঠে কাজ করবে এবং কর্মীদেরকেও তা বাস্তবায়ন করাবে। ভালো লাগার বিষয়টি হচ্ছে ছাত্রলীগের শীর্ষ এই দুই নেতা নেতা-কর্মীদের নিয়ে কৃষকের ধান কেটে ঘরেও তুলে দিয়েছেন। বৃহস্পতিবার(২৩ এপ্রিল) মুন্সীগঞ্জের আড়িয়াল খাঁ বিলে শফিকুল ইসলাম নামে এক কৃষকের ধান কেটেছেন তারা। জমিতে ধান পাকলেও শ্রমিক না পাওয়ায় ধান কাটতে পারছিলেন না কৃষক শফিকুল। ফোন নম্বর সংগ্রহ করে ছাত্রলীগ নেতাদের ফোন করলে জয় ও লেখক নিজে গিয়ে ওই কৃষকের ধান কেটে দেন। গণমাধ্যম সূত্রে জানলাম, দেশের বিভিন্ন জেলা ও উপজেলা পর্যায়ের নেতাকর্মীরাও এই মহতী কর্মযজ্ঞে অংশগ্রহণ করতে শুরু করেছে। ঢাকা জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মো: সাইদুল ইসলামের নেতৃত্বে সাভারের ভাকুর্তায় শুক্রবার (২৪ এপ্রিল) সকালে কৃষকের ধান কেটেছে নেতা-কর্মীরা। ধান কেটে কৃষকের বাসায় তুলে দিয়েও এসেছে।

ঢাকা জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মো: সাইদুল ইসলামের নেতৃত্বে সাভারের ভাকুর্তায় শুক্রবার কৃষকের ধান কেটে দিচ্ছে ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরা। – ছবি : দেশবাংলা প্রতিদিন।

সাইদুল ইসলামের ডাকে সাড়া দিয়ে ঢাকা জেলা উত্তর ছাত্রলীগের নেতা শাহীন চৌধুরী দ্বীপ আশুলিয়া থানা এলাকার ছাত্রলীগ নেতা-কর্মীদের সাথে নিয়ে ভাকুর্তার কৃষকের পাশে দাঁড়ান। কক্সবাজারের কৃষকরাও ছাত্রলীগের প্রশংসায় পঞ্চমুখ। শনিবার (১৮ এপ্রিল) সকাল থেকে কৃষক হাফেজের ধান কেটে ঘরে পৌঁছে দিয়েছেন জেলা ছাত্রলীগের ৩০ নেতা-কর্মী। বৃহস্পতিবার(২৩ এপ্রিল) দিনব্যাপী ঢাকার ধামরাই সরকারী কলেজ শাখা ছাত্রলীগের নেতা হাবিবুর রহমান হাবিবসহ ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরাও কৃষকের পাশে দাঁড়িয়েছিল। কৃষকদের ধান কেটে ঘরে তুলে দিয়েছে শরীয়তপু‌রের নড়িয়া সরকা‌রি ক‌লেজ শাখা ছাত্রলীগ। হাওরপ্রধান জেলাগুলোর মধ্যে অন্যতম সুনামগঞ্জ। এখানে অর্ধেকের বেশি মানুষের প্রধান পেশা কৃষিকাজ। বোরো আবাদ কৃষকের সোনালি স্বপ্ন। এবার সুনামগঞ্জের হাওরে ধানের বাম্পার ফলন হয়েছে। এ অবস্থায় কৃষকের পাশে দাঁড়িয়েছে সুনামগঞ্জ ছাত্রলীগ। ছাত্রলীগ নেতাকর্মীদের নিয়ে কৃষক শফিকুলের ধান কাঁধে নিয়ে লেখক-জয় কৃষকের বাড়িতে পৌঁছে দিয়ে দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন। কর্মীদের নির্দেশ দিয়ে জয়-লেখক ঘরে বসে থাকতে পারেনি। সংকটে পড়া কৃষকের পাশে ছাত্রলীগের সবাইকে দাঁড়ানোর নির্দেশনাই হলো মানবতার অনন্য নজির। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ছাত্রলীগ সৃষ্টিই করেছিলেন মানুষের কল্যাণের জন্য। বাংলাদেশের স্থপতি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সবসময় বলতেন, ‘ছাত্রলীগের ইতিহাস বাংলাদেশের ইতিহাস’। বাংলা, বাঙালি, স্বাধীনতা ও স্বাধিকার অর্জনের লক্ষে ১৯৪৮ সালের ৪ জানুয়ারি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ফজলুল হক হলের অ্যাসেম্বলি হলে বাংলাদেশ ছাত্রলীগের প্রতিষ্ঠা করেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। প্রতিষ্ঠার সময় ছিল পূর্ব পাকিস্তান ছাত্রলীগ। পরবর্তী সময়ে ১৯৭১ সালে স্বাধীনতা যুদ্ধের পর পূর্ব পাকিস্তান মুসলিম ছাত্রলীগের পরিবর্তে হয় বাংলাদেশ ছাত্রলীগ। তৎকালীন তরুণ নেতা শেখ মুজিবুর রহমানের প্রেরণায় ও পৃষ্ঠপোষকতায় একঝাঁক সূর্যবিজয়ী স্বাধীনতাপ্রেমী তারুণ্যের উদ্যোগে প্রতিষ্ঠিত হয় এশিয়া মহাদেশের ‘বৃহত্তম’ ছাত্র সংগঠন বাংলাদেশ ছাত্রলীগ। বাংলাদেশ ছাত্রলীগের ইতিহাস জাতির মুক্তির স্বপ্ন, সাধনা এবং সংগ্রামকে বাস্তবে রূপদানের ইতিহাস। হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি, বাংলাদেশের স্থপতি, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান আওয়ামী লীগ প্রতিষ্ঠার আগে ছাত্রলীগ প্রতিষ্ঠা করেছিলেন। যে কোনো প্রাকৃতিক দুর্যোগে ছাত্রলীগ সবার আগে মানুষের পাশে দাঁড়ায় এটাতো এবারো প্রমাণিত হলো। টেকনাফ থেকে তেতুলিয়া কোথাও বসে নেই ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। নিজেদের সবটুকু দিয়ে কাজ করে যাচ্ছে গণমানুষের কল্যাণে।

লেখকঃ মিঠুন সরকার, স্টাফ রিপোর্টার (ক্রাইম), দৈনিক সংবাদ প্রতিদিন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*