Monday , June 25 2018
সর্বশেষ সংবাদ :
Home / সারাদেশ / পলট্রি ফার্মের দূর্গন্ধে শিশুদের পড়ালেখার পরিবেশ বিপর্যস্ত
পলট্রি ফার্মের দূর্গন্ধে শিশুদের পড়ালেখার পরিবেশ বিপর্যস্ত

পলট্রি ফার্মের দূর্গন্ধে শিশুদের পড়ালেখার পরিবেশ বিপর্যস্ত

বাবুল হোসেন:  ঢাকার ধামরাইয়ে পারুহালা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রায় পাচঁশতাধিক ছাত্র-ছাত্রী স্কুলের পাশে তিনটি পলট্রি ফার্মের দূর্গন্ধ বন্ধ করার দাবিতে এক মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মিছিল করেছে। রবিবার দুপুরে ওই স্কুলের মাঠে শিক্ষার্থীরা তিনটি ফার্ম বন্ধ করার জন্য উপজেলা প্রশাসনের কাছে আবেদন করেন।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায় ,উপজেলার গাঙ্গুটিয়া ইউনিয়নের পারুহালা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পাশে আনোয়ার কবির ও দবির উদ্দিনের তিনটি পলট্রিফার্ম রয়েছে। ওই তিনটি পলট্রি ফার্মের প্রায় চার হাজার লিয়ার মুরগি রয়েছে। এতে প্রতিদিন দূগন্ধে স্কুলের ছাত্র-ছাত্রীরা ক্লাস রোমে থাকতে পারে না।ফলে তাদের লেখাপড়ার ব্যাঘাত ঘটছে। এমনকি শিক্ষকরাও দূর্গন্ধের কারনণ মানসম্মত শিক্ষা দিতে পারছে না । ওই পলটি ফার্মের দূর্গন্ধের কারণে  অনেক শিক্ষার্থী স্কুলে আসা বন্ধ করে দিয়েছে। প্রতিদিন অনেক শিক্ষার্থী ডায়েরিয়া থেকে শুরু করে বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত হচ্ছে। এর প্রতিবাদে রবিবার দুপুরে পারুহালা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের মাঠে পাচঁশতাধিক শিক্ষার্থী ওই তিনটি পলটি ফার্ম বন্ধ করার জন্য একটি বিক্ষোভ মিছিল করেন।

এবিষয়ে পারুহালা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শাজাহান কবির জানান,প্রতিদিন তিনটি পলট্রি ফার্মের এত দুরগন্ধ হয় যে ছাত্র-ছাত্রীদের পড়া-লেখা ব্যাঘাত ঘটছে। এতে আমাদের শিক্ষার্থীদের মানসম্মত শিক্ষা দিতে সমস্যা হছে। তিনি আরো জানান,ইতোপূর্বেও আমি চেয়ারম্যানকে বিষয়টি বারবার বলার পর কোন কাজে আসেনি। উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা কাজি রাশেদ মামুন বলেন,আমি এখনই বিষয়টি নিয়ে উপজেলা প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তা ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাথে আলাপ করে  প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবো। গাঙ্গুটিয়া ইউপি চেয়ারম্যান কাদের মোল্লা বলেন,আমি বিষয়টি শুনেছি ঘটনাস্থলে গিয়ে কিছু একটা করবো। তবে পল্টি ফার্মের মালিক আনোয়ার কবির ও দবির উদ্দিন বলেন,আমরা পলট্রি ফার্ম সবসময় পরিস্কার পরিছন্ন রাখার চেষ্টা করি। তারপরও গন্ধ হইলে আমাদের কিছু করার নাই।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*