Tuesday , May 21 2019
সর্বশেষ সংবাদ :
Home / আন্তর্জাতিক / বিয়ের খরচে লাগাম টানতে অঙ্গরাজ্য সরকারের বাধানিষেধ

বিয়ের খরচে লাগাম টানতে অঙ্গরাজ্য সরকারের বাধানিষেধ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: ভারতনিয়ন্ত্রিত জম্মু ও কাশ্মীর অঙ্গরাজ্যের সরকার রাজ্যবাসীর বিয়ের খরচে লাগাম টেনে ধরতে চাইছে। এ জন্য আরোপ করা হলো বিধিনিষেধ। নতুন এই বিধি অনুযায়ী, কনের পরিবার পাঁচ শর বেশি এবং বরের পরিবার চার শর বেশি অতিথি নিমন্ত্রণ করতে পারবে না। খাবারের মূল পদও সাতটির বেশি রাখা যাবে না।
কাশ্মীরে বিয়ের অনুষ্ঠান-আয়োজনে অতিরিক্ত ব্যয় একপ্রকার নিয়ম হয়ে দাঁড়িয়েছে। বিপুলসংখ্যক অতিথির সমাগম হয় এসব অনুষ্ঠানে। রাজ্য সরকারের ভাষ্য, এতে করে অর্থ ও খাবারের ব্যাপক অপচয় হয়। হট্টগোলও কম হয় না। এ নিয়ে অভিযোগ পুরোনো। এ কারণেই খরচের এই লাগাম টানা। আগামী ১ এপ্রিল থেকে নতুন এ নিয়ম বলবৎ হবে।
এর আগে ১৯৮৪ সালেও একবার বিয়ে অনুষ্ঠানের খরচের রাশ টেনে ধরতে চেয়েছিল কাশ্মীর সরকার। কিন্তু বিক্ষোভের মুখে পড়ে তা প্রত্যাহার করে নিতে হয়।
শুধু কাশ্মীরেই নয়, ভারতের অন্যান্য রাজ্যেও বিয়েতে বিপুল ব্যয়ের প্রবণতা দেখা যায়। গত বছরের নভেম্বরে কর্ণাটকের সাবেক মুখ্যমন্ত্রী এবং ব্যবসায়ী জি জনার্ধন রেড্ডি মেয়ের বিয়েতে ৫০০ কোটি রুপি খরচ করেন। ১ কোটি রুপি ব্যয়ে স্বর্ণখচিত এলসিডি স্ক্রিনের নিমন্ত্রণপত্র তৈরি করেছিলেন তিনি। কেন্দ্রীয় সরকারের নোট বাতিলের কারণে ঠিক ওই সময়টায় দেশজুড়ে চলছিল অর্থসংকট। এমন একটা মুহূর্তে বিয়েতে এত বিপুল ব্যয় ভালোভাবে নেয়নি মানুষ। এর আগে ভারতের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ধনাঢ্য ব্যক্তি শিল্পপতি লক্ষ্মী মিত্তাল ২০০৪ সালে মেয়ের বিয়ে উপলক্ষে ৭ কোটি ৪০ লাখ ডলার খরচ করেছিলেন বলে জনশ্রুতি রয়েছে। মার্কিন ব্যবসা সাময়িকী ফোর্বস-এর ভাষ্যমতে, মিত্তাল পরিবার এক হাজার অতিথিকে ফ্রান্সে উড়িয়ে নিয়ে গিয়েছিলেন বিয়ে উপলক্ষে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*