Saturday , July 20 2019
সর্বশেষ সংবাদ :
Home / সারাদেশ / কেরানীগঞ্জের ক্ষুদ্র যন্ত্রাংশ এলাকা পরিদর্শনে অস্ট্রেলিয়ার গবেষণাদল
কেরানীগঞ্জের ক্ষুদ্র যন্ত্রাংশ এলাকা পরিদর্শনে অস্ট্রেলিয়ার গবেষণাদল

কেরানীগঞ্জের ক্ষুদ্র যন্ত্রাংশ এলাকা পরিদর্শনে অস্ট্রেলিয়ার গবেষণাদল

দেশবাংলা প্রতিদিন ডেস্ক:  উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে ঢাকার কেরানীগঞ্জের ক্ষুদ্র ব্যবসা পূর্ব আগানগর গার্মেন্ট পল্লী ও জিনজিরা তাওয়াপট্রির লৌহজাত তৈরির যত্রাংশ এলাকা পরিদর্শন করেছে অস্ট্রেলিয়ার একটি গবেষণাদল। আজ শনিবার সকাল ১১টার দিকে গবেষকদলটি পূর্ব আগানগর এলাকার গার্মেন্ট পল্লীখ্যাত বিভিন্ন তৈরি পোশাক কারখানা ঘুরে দেখেন।

পরে বেলা সাড়ে ১১টায় জেলা পরিষদ মার্কেটে গার্মেন্ট মালিক সমিতি কার্যালয়ে সমিতির নেতাকর্মী ও ব্যবসায়ীদের সঙ্গে মতবিনিময় করেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন মেলবোর্নের মোনাস বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. কামরুল আলম, রিমিট বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক (ইঞ্জিনিয়ার) ড. ফিরোজ আলম, যুগ্ম সচিব (বাংলাদেশ পাবলিক এডমিনিসট্রিশন ট্রেনিং সেন্টার, সভার, ঢাকা) ড. রেজোয়ান খায়ের, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আবুল বাসার মোহাম্মদ ফখরুজ্জামান, সমিতির সভাপতি মো. আজিজুল শেখ, সম্পাদক মো. মিজানুর রহমান প্রমুখ।

গবেষকদলটি এরপর দুপুর ১টার সময় জিনজিরা তাওয়াপট্রি এলাকায় জিনজিরা তাওয়াপট্রির লৌহজাত যত্রাংশ নির্মাণ এলাকা পরিদর্শন করে। পরিদর্শন শেষে সমিতি সভাপতি আক্তার জিলানী খোকন, ব্যবসায়ী হাজি রফিক, আহমদ আলী, মো. দেলোয়ার হোসেন, মো. বাবুল, মো. কামাল হোসেন এবং সাংবাদিকদের নিয়ে মতবিনিময় করেন। মতবিনিময়ের মাধ্যমে ব্যবসায়ীরা তাদের ব্যবসার সমস্যার কথা তুলে ধরে বলেন, “একসময় কেরানীগঞ্জ বাতির নিচে অন্ধকার ছিল। কিন্তু আমরা প্রায় ৩৫-৪০ ধরে যখন থেকে এ শিল্প এখানে গড়ে তুলেছি। তখন থেকে এ এলাকা আর অন্ধকারে নাই। আমরা গার্মেন্টের ঝুট কাপড় কিনে এনে তা থেকে পোশাক তৈরি  করি। আবার পুরনো লৌহজাত কিংবা জাহাজ কাটার বর্জ্যকে আমরা কাঁচামাল হিসেবে ব্যবহার করে বিভিন্ন যন্ত্রাংশ তৈরি করে সরকারের অনেকদিক দিয়ে সহযোগিতা করে থাকি। সরকার যদি আমাদের এ ব্যবসার দিকে একটি নজর দিয়ে আমাদের যাতায়াতের ব্যবস্থা, সহজ শর্তে ঋণের ব্যবস্থা করে তাহলে আমরা যেমন উপকৃত হব তেমনি সরকারও আমাদের দ্বারা অনেক উপকার পাবে। ”

মতবিনিময় সভায় ড. কামরুল আলম বলেন, “আপনাদের এ ক্ষুদ্র ব্যবসার সমস্যার দিকগুলো নিয়ে আমরা সরকারকে জানাবো। ” পাশাপাশি ব্যবসায়ীদের সরকারের কাছে সমস্যার কথাগুলো জানানোর জন্য আবেদন করার পরামর্শও দেন। মতবিনিময় সভায় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আবুল বাসার মোহাম্মদ ফখরুজ্জামান ব্যবসায়ীদের বিভিন্ন সমস্যার কথা উল্লেখ করে বলেন, “এখানে অনেক সমস্যা রয়েছে যা স্থানীয় দুই মন্ত্রী এবং উপজেলা চেয়ারম্যানের সঙ্গে আলোচনা করে শেষ করা যাবে। গবেষকদলটির পরিদর্শনের সময় জিনজিরা ইউনিয়ন পরিষদের জনপ্রতিনিধিনরাও উপস্থিত ছিলেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*