Wednesday , October 23 2019
সর্বশেষ সংবাদ :
Home / লীড নিউজ / আওয়ামী লীগের অর্জনের সাথে চ্যালেঞ্জও বেড়েছে
আওয়ামী লীগের অর্জনের সাথে  চ্যালেঞ্জও  বেড়েছে

আওয়ামী লীগের অর্জনের সাথে চ্যালেঞ্জও বেড়েছে

দেশবাংলা প্রতিদিন ডেস্ক: নারায়ণগঞ্জের নির্বাচনকে অনেক অর্জনের নির্বাচন মনে করছে আওয়ামী লীগ। একই সঙ্গে এই নির্বাচন তাদের ভবিষ্যৎ রাজনীতির জন্য একটা চ্যালেঞ্জ বলেও মনে করছেন দলটির নেতাদের অনেকে। আওয়ামী লীগের দায়িত্বশীল বিভিন্ন সূত্রের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, আরেকটি নির্বাচন কমিশন গঠনের প্রাক্কালে নারায়ণগঞ্জের নির্বাচন সুষ্ঠু করা এবং জয়ের মাধ্যমে দলের জনপ্রিয়তা দেখানোরও তাগিদ ছিল আওয়ামী লীগের। এ কারণে সেলিনা হায়াৎ আইভীকে দলীয় মনোনয়ন দেওয়া হয়েছে। আইভীর ব্যক্তি ইমেজ ও জনপ্রিয়তার ওপর ভরসা করে নারায়ণগঞ্জে আওয়ামী লীগ ‘বাজি’ ধরতে পেরেছে।
তবে নারায়ণগঞ্জের নির্বাচনের মাধ্যমে সরকার ও আওয়ামী লীগের ওপর সুষ্ঠু নির্বাচনের ধারা বজায় রাখার চাপ বেড়ে গেছে। মানুষের মধ্যে এমন ধারণা তৈরি হয়েছে যে সরকার চাইলেই সুষ্ঠু নির্বাচন করা সম্ভব। পাশাপাশি দলীয় রাজনীতিতে কী ধরনের নেতাদের এগিয়ে নিতে হবে আর কাদের দূরে রাখতে হবে—সেই শিক্ষাও দিয়েছে এই নির্বাচন।
নারায়ণগঞ্জে আইভীর বিপুল বিজয়ের পর গতকাল শুক্রবার আওয়ামী লীগের নীতিনির্ধারণী পর্যায় ও কেন্দ্রীয়ভাবে নারায়ণগঞ্জের নির্বাচন তদারকের দায়িত্বে থাকা ১০ জন নেতার সঙ্গে কথা হয় এই প্রতিবেদকের। তাঁদের প্রায় সবাই বলেছেন, আইভীর জয়ের ব্যাপারে সবাই আশাবাদী ছিলেন। কিন্তু সাম্প্রতিক সময়ে সত্যিকারের প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ নির্বাচনে অংশ নেওয়ার অভিজ্ঞতা নেই সরকারি দলের। ফলে ভোটারদের আচরণ কী হতে পারে—তা নিয়ে শঙ্কাও ছিল। শেষ পর্যন্ত স্বস্তির জয়ই এসেছে।
এসব নেতার মতে, এখন আর বিএনপির নেতারা কথায় কথায় বলতে পারবেন না যে সুষ্ঠু নির্বাচন হলে সরকার ভেসে যাবে। তবে এখন আওয়ামী লীগের অর্জনের চেয়ে মানুষের মধ্যে বেশি আলোচিত হবে, সরকার চাইলেই সুষ্ঠু নির্বাচন করা সম্ভব। এর ফলে একটা চাপও তৈরি হবে।
গতকাল সন্ধ্যায় গণভবনে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে গিয়ে আইভী বলেছেন, নিরপেক্ষ নির্বাচন হয়েছে বলেই নৌকার জয় হয়েছে। প্রমাণ হয়েছে শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সুষ্ঠু নির্বাচন সম্ভব। নারায়ণগঞ্জে যে উদহারণ সৃষ্টি হলো, তা সারা বাংলাদেশে হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*